রিচার্ড স্টলম্যানকে সমর্থন দিন!

লিয়া রো

৩১ মার্চ ২০২১


News article published on ৩১ মার্চ ২০২১ by লিয়া রো. Return to index

ভূমিকা

২ বছর আগে, কথিত চিন্তা অপরাধী রিচার্ড এম স্টলম্যানকে (আরএমএস) অনধিকারভাবে প্রোপ্রাইটারি সফটওয়্যার সমর্থকদের নির্দেশে গণমাধ্যমের সাহায্যে অরওয়েলিয়ান ধরণের অপপ্রচারের মাধ্যমে ধর্ষণ সমর্থন করার মিথ্যা অপবাদ দেয়া হয়েছিল। ফলাফল হিসেবে ৩৬ বছর যাবৎ আপনার ডিজিটাল স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন, ক্যানসেল হয়ে গেল। এটা এতটাই খতরনাক ছিল যে তিনি ফ্রি সফটওয়্যার ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট পদ থেকে নেমে যান। এফএসএফ ওনাকে বাঁচানোর বা প্রতিরোধ করার জন্য কিছুই করে নি। কিন্তু, আপনি ওনাকে সমর্থন করতে পারেন।

২১শে মার্চ ২০২১, এফএসএফ বোর্ড অব ডিরেক্টর রিচার্ড স্টলম্যানকে পুনর্বহাল করেন। এর প্রতিউত্তরে, পক্ষপাতদুষ্ট মিডিয়া নতুন অপপ্রচার শুরু করে। একটি পিটিশন তৈরি করা হয়, যেখানে আরএমএসকে এবং সঙ্গে সঙ্গে সম্পূর্ণ বোর্ড অব ডিরেক্টর সদস্যদেরকে জোরপূর্বক অপসারণ করার জন্য তাগিদ দেয়া হয়। আরএমএসের খ্যাতি নষ্ট করার জন্য তাকে যৌনবৈষম্যবাদ, লিঙ্গান্তর/হিজড়াভীতি, প্রতিবন্ধী ঘৃণাকারী এবং অন্যান্য বিভিন্ন বিশেষণ দিয়ে মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়। তাদের কোনকিছু শুনবেন না। অন্যদিকে রিচার্ড স্টলম্যানের রাজনৈতিক নোট এবং আর্টিকেল প্রমাণ করে যে তিনি সবসময় গোঁড়ামির বিরুদ্ধে কথা বলেছেন!

এর জবাবে, আমরা, ফ্রি সফটওয়্যার আন্দোলন, আমাদের নিজস্ব একটি পিটিশন তৈরি করেছি। আমরা চাই আরএমএস ওনার পদবীতে বহাল থাকুন,এবং এফএসএফ ওনাকে সমর্থন করুন। আমরা চাই এফএসএফ রিচার্ড স্টলম্যানের সম্মান এবং সুনাম রক্ষা করুন। রিচার্ড স্টলম্যান একজন মানুষ, যার বাকস্বাধীনতার অধিকার অনৈতিকভাবে দমন করার চেষ্টা করা হয়েছে। আমাদের ওনার প্রতি সমর্থন প্রদর্শন করা উচিৎ, উচ্চৈস্বরে এবং স্পষ্টভাবে।

**যদি আপনি ফ্রি সফটওয়্যার সমর্থন করেন, বাকস্বাধীনতায়, মানবগোষ্ঠীর স্বাধীনতায় এবং সামাজিক সুবিচারে (সত্যিকারের সামাজিক সুবিচার, যেখানে মানুষকে মর্যাদা দেয়া হয় এবং তাদের বিশ্বাসের জন্য ক্যানসেল করা হয় না) বিশ্বাস করেন, তাহলে এখানে আপনার নামে স্বাক্ষর করুন:

https://rms-support-letter.github.io/

রিচার্ডের অপসারণ চাওয়া বিপক্ষের পিটিশনটির এখানে লিংক দেয়া হবে না, কারণ সেটিকে শক্তিশালী করা গুরুত্বপূর্ণ নয়। এছাড়াও এতে বিপক্ষের সার্চ ইঞ্জিন অবস্থান ভালো হবে যেটা আরএমএস-কে আঘাত করতে সাহায্য করতে পারে। একইভাবে, তাদের অপপ্রচারেরও এখানে সরাসরি লিংক দেয়া হবে না, কিন্তু শুধু নিন্দিত হবে!

কিভাবে সেখানে আপনার নাম স্বাক্ষর করতে হবে সে বিষয়ে নির্দেশনা পেজটিতে দেয়া আছে। যদি আপনি কোন প্রজেক্টের পক্ষে স্বাক্ষর করতে চান, অনুগ্রহ করে ব্যাকেটের মধ্যে সেটি উল্লেখ করুন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি John Doe হয়ে থাকেন এবং আপনার প্রজেক্টের নাম যদি Foobar Libre হয়ে থাকে, তাহলে লিখুন John Doe (Foobar Libre developer) বা হয়তো John Doe (Foobar Libre founder and lead developer)। আপনি এফএসএফ সদস্য হয়ে থাকেন (যেমন: এ্যাসোসিয়েট মেম্বার), ব্র্যাকেটে সেটিও উল্লেখ করুন।

আপনি যদি আরএমএস-বিরোধী লিস্টে তালিকাভুক্ত হওয়া কোন প্রজেক্ট/প্রতিষ্ঠানের সদস্য হন, তাহলে এটা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ যেন আপনি আরএমএস-সমর্থিত লিস্টে স্বাক্ষর করার সময় ঐ প্রজেক্টের কথা উল্লেখ করেন। এছাড়াও আপনার প্রজেক্ট বা প্রতিষ্ঠানের মানুষদের সাথে কথা বলুন, এবং তাদেরকে তাদের সিদ্ধান্ত বদলাতে অনুরোধ করুন।

নাম স্বাক্ষর করা ছাড়াও, আপনি যদি কোন সফটওয়্যার প্রজেক্টের মালিক হন, প্রজেক্টকে সরাসরি রিচার্ডের পক্ষের বলে প্রচার করুন! ওনার যতটুকু সম্ভব সমর্থন আমাদের করা উচিৎ। আমাদের, ফ্রি সফটওয়্যার আন্দোলন হিসেবে, ওনাকে শক্তি দেয়া উচিৎ!

ভুল বুঝবেন না। কোন ফ্রি সফটওয়্যার প্রোজেক্ট যদি আরএমএস-বিরোধী লিস্টে থাকে, এর মানে সিদ্ধান্তটি লিডাররা নিয়েছেন আপনি নন। এতে প্রতিষ্ঠানের ভেতরের মানুষদের বিশ্বাস সম্পর্কে কিছুই বোঝা যায় না।

অনুগ্রহ করে এফএসএফকে ইমেইল করুন এবং জানান যে আপনি রিচার্ডকে সমর্থন করেন! এফএসএফ’র যোগাযোগের তথ্য এখানে পাবেন: https://www.fsf.org/about/contact/

আমাদের বিরোধীরা ফ্রি সফটওয়্যারকে ধ্বংস করে দিতে চায়

আমাদের বিরোধীদের সত্যিকার টার্গেট রিচার্ড স্টলম্যান নয়; তাদের আসল উদ্দেশ্য হলো এফএসএফের গভীরে অনধিকার প্রবেশ করা (যেভাবে তারা অন্যান্য আরো প্রতিষ্ঠানে করেছে যেমন ওপেন সোর্স ইনিশিয়েটিভ এবং লিনাক্স ফাউন্ডেশন)। এরা এমনকি আরএমএস’র এবং সম্পূর্ণ এফএসএফ বোর্ড অব ডিরেক্টর সদস্যদের বাধ্যতামূলক অপসারণ করার জন্য অনলাইনে পিটিশন তৈরি করেছে। স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছে তাদের উদ্দেশ্য অযৌক্তিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে এফএসএফকে ধ্বংস করা! ভয় পেয়ে, অনেক পরিচিত ফ্রি সফটওয়্যার প্রজেক্ট আরএমএস-বিরোধী শিকারে মত্ত হয়েছেন কারণ তারা চান না যে তাদেরকেও একইভাবে ক্যানসেল করা হোক। রিচার্ডকে আঘাত করা লিস্টে মাইক্রোসফট, গুগল, ওপেন সোর্স ইনিশিয়েটিভ, লিনাক্স ফাউন্ডেশন, গানোম ফাউন্ডেশন এবং এথিকাল সোর্সের লোকেরা আছে! এরা সবসময়ই ফ্রি সফটওয়্যার চিন্তাধারার বিরোধী (যদিও তাদের অনেকে মাঝে মাঝে ফ্রি সফটওয়্যার তৈরি করেন, কিন্তু স্বাধীনতার প্রচারের জন্য নয়) এবং এদের মধ্যে অনেকে উল্টো এই আন্দোলনকে সক্রিয়ভাবে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছেন! কিভাবে এরা আমাদের পক্ষে কথা বলার সাহস পায়!

আরএমএসের বিরোধীতা করা চিঠিটি শুধু কথার বুলি আওড়িয়েছে, কিন্তু বাস্তবে তা মেনে দেখাতে পারে নি। ঐ লিস্টে থাকা মানুষগুলো আমাদের প্রতিনিধিত্ব করে না! আপনি যদি লিস্টে আসল ফ্রি সফটওয়্যার ডেভেলপারদের দেখতে পান, অনুগ্রহ করে তাদের সাথে কথা বলুন। তাদের সাথে ঘৃণাসুলভ বা হিংসুক আচরণ করবেন না, শুধু কথা বলুন: বলুন যে তারা একটি ঘৃণা উদ্দীপক প্রচারের স্বীকার হয়েছেন। সম্ভবত, যারা বিরোধী সেই চিঠিটিতে স্বাক্ষর করেছেন তারা একটু ভয় পেয়ে গিয়েছেন; কারণ শুরুর দিকে, আরএমএসের পক্ষের কোন চিঠি তখন ছিল না, এবং তাই তখন বোঝার উপায় ছিল না যে আরো কত মানুষ যে আরএমএস’র পক্ষে আছেন। অন্যভাবে বলতে গেলে, অনেকে হয়তো আরএমএস-বিরোধী চিঠিটিতে স্বাক্ষর করেছেন কারণ তারা দলছুট হতে চান নি। কারণ যখন তিনি পদত্যাগ করেছিলেন তখন আমরা প্রস্তুত ছিলাম না। তখন আমরা নীরব ছিলাম, অপ্রস্তুত ছিলাম। আমরা সেবার নীরব ছিলাম, কিন্তু এবার আর আমরা নীরব থাকবো না!

৩১শে মার্চ ২০২১, রাত ২:৫০ মিনিট ইউকে সময় পর্যন্ত, আমরা বিজয়ী হতে যাচ্ছি! আরএমএসের অপসারণের চিঠিতে ২৯৫৯টি স্বাক্ষর আছে। আরএমএসকে সমর্থন এবং রক্ষা করার জন্য আমাদের চিঠিতে ৪৫৩৩টি স্বাক্ষর আছে! অর্থাৎ ৬০% ভাগ সমর্থন, যদি আপনি হিসাব করে থাকেন কিন্তু আমাদের পিটিশনটি ক্রমান্বয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে যেখানে আরএমএস-বিরোধী পিটিশনটি থেমে আছে। মানুষ বুঝতে পারছে যে আরএমএসকে সমর্থন করা ঠিক আছে, কারণ এটাই ঠিক কাজ। আরএমএস কোন অপরাধী নন বরং নিরপরাধী!

রিচার্ড স্টলম্যান আমাদের হিরো

আমি ফ্রি সফটওয়্যার আদর্শে দৃঢভাবে বিশ্বাস করি। আমি লিবারবুট (Libreboot)-এর প্রতিষ্ঠাতা, এবং এর প্রধান ডেভেলপার। আমি যখন ২০০০ সালের মাঝমাঝি একজন টিনেজার ছিলাম তখন জীবনের প্রথম ফ্রি সফটওয়্যার ব্যবহার করি, তখন রিচার্ড স্টলম্যানের লেকচারগুলো আমাকে মোহিত করেছিল; রিচার্ড ১৯৮৩ সালে গনু প্রজেক্ট এবং ১৯৮৫ সালে ফ্রি সফটওয়্যার ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এছাড়াও আমি Revolution OS নামে একটি সিনেমা দেখেছিলাম এবং এরিক রেমন্ডের Cathedral and the Bazaar পড়েছিলাম। আমি খুব দ্রুতই অভিভুত হয়ে যাই কিন্তু রিচার্ডের ওয়েবসাইটের আর্টিকেলগুলো পড়ে আমি সত্যিকার অর্থে অনুপ্রাণিত হই। যদিও কয়েক বছর, আমি ওপেন সোর্স সমর্থক ছিলাম কিন্তু তারপর ২০০৯ সালে আমি ফ্রি সফটওয়্যারের দিকে আকৃষ্ট হই। আমি সিসএ্যাডমিন হিসেবে এবং বিভিন্ন কোম্পানিতে আইটি সাপোর্টে চাকরি করেছি, যেখানে আমাকে উইন্ডোজ ছাড়াও বিভিন্ন প্রোপ্রাইটারি সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হতো, অন্যদিকে বাসায় আমি গনু+লিনাক্সে প্রোগ্রামিং করা শিখে নিচ্ছিলাম। আমি প্রোপ্রাইটারি সিস্টেমে কাজ করা ভীষণ অপছন্দ করতাম, বিশেষ করে কারণ এগুলো আমার বাসার সিস্টেমের তুলনায় অনেক সীমাবদ্ধ মনে হতো, যেগুলোর সবগুলোতেই বিভিন্ন গনু+লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশন চালাতাম (পাশাপাশি আমি ওপেনবিএসডিও চালিয়েছি)। যখন আমি এ-লেভেল সম্পন্ন করি, আমি কম্পিউটার নিয়ে পড়াশোনা শুরু করলাম কিন্তু সেখানে আমাদেরকে তারা প্রোপ্রাইটারি ভিজুয়াল স্টুডিও আইডিই এবং সি# ব্যবহার করতে বাধ্য করেছিলো; আমি যেটা খুব ঘৃণা করতাম, কিন্তু মোটামুটি সহ্য করতাম কারণ বাসায় আমি মোনো ব্যবহার করে আমার ক্লাস এ্যাসাইনমেন্টগুলো করে ফেলতাম। এর অল্প সময় পর ২০১৩ সালে আমি যখন এফএসএফে এ্যাসোসিয়েট মেম্বার হিসেবে যোগ দিলাম আমার জীবন নতুন মোড় নিলো, এবং লিবারবুট এর একটি বড় অংশ ছিল। বলা বাহুল্য, আমি আমার জীবন থেকে প্রোপ্রাইটারি সফটওয়্যারের উপর নির্ভরতাগুলো দূর করার জন্য উঠে পড়ে লাগলাম এবং অন্যদেরকেও এই স্বাধীনতা উপভোগ করার আমন্ত্রণ জানাই সবসময়ই।

রিচার্ড স্টলম্যানের আর্টিকেল এবং ভিডিও লেকচারগুলোই আমাকে এই পথে নিয়ে এসেছে। আমি ওনার সাথে ৫ বার দেখা করার সুযোগ পেয়েছি, ৩টি ভিন্ন দেশে।

কম্পিউটারের ইতিহাসের প্রথম দিকে, বেশিরভাগ সফটওয়্যার (বলতে গেলে প্রায় সবই) সবাই সোর্স কোডসহ স্বাধীনভাবে শেয়ার করতো। ১৯৮০’র দশকের শুরুর দিকে, সফটওয়্যার যখন ব্যবসায়িক রূপ নিতে শুরু করলো, কোম্পানিগুলো সফটওয়্যারকে প্রোপ্রাইটারি বানানো শুরু করলো যার মানে হচ্ছে সেগুলোর সাথে আর কোনসময় সোর্স কোড থাকবে না অথবা সোর্স কোড থাকলেও ব্যবহার, ডেভেলপমেন্ট বা শেয়ার করার ক্ষেত্রে অন্য কোন সীমাবদ্ধতা দিয়ে দেয়া হবে। এর মানে কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের কম্পিউটার চালানোর কোন স্বাধীনতা থাকবে না; ১৯৮৩ সালে গনু প্রজেক্ট যখন শুরু হলো, তখন ফ্রি সফটওয়্যারের কোন অস্তিত্ব ছিল না। রিচার্ড স্টলম্যান, তখন প্রোপ্রাইটারি সফটওয়্যার ডেভেলপার হলে এক বিপুল সম্ভাবনা থাকতো ওনার সামনে, কিন্তু তিনি একরোখাভাবে এই প্রবণতা থেকে দূরে সরে থাকেন এবং গনু প্রজেক্ট শুরু করেন যাতে মানুষ তাদের কম্পিউটারে সম্পূর্ণ স্বাধীন একটি অপারেটিং সিস্টেম চালাতে পারে।

আমি যে কারণে সবার জন্য সার্বজনীন শিক্ষায় বিশ্বাস করি সেই একই কারণে স্বাধীন সফটওয়্যারেও বিশ্বাস করি; আমি বিশ্বাস করি জ্ঞান প্রতিটি মানুষের অধিকার। উদাহরণস্বরূপ, আমি বিশ্বাস করি যে সব শিশু কিশোরদের গণিত শেখার অধিকার আছে। কম্পিউটার সায়েন্সের ব্যাপারেও একই বিশ্বাস আমার। শিক্ষা একটি মানবাধিকার। আমি চাই সবারই স্বাধীনতা থাকুক; শেখার স্বাধীনতা, মানবগোষ্ঠীর জন্য এবং বাকস্বাধীনতার জন্য। প্রোগ্রামিংও এক ধরণের অধিকার বাকস্বাধীনতার মতো, এবং আমি বিশ্বাস করি সকল ভালো জিনিসই অন্যের ভালো কিছুর উপর নির্ভর করে; এজন্য কমিউনিটির অধিকার গুরুত্বপূর্ণ। ফ্রি সফটওয়্যারের চারটি স্বাধীনতাও অপরিসীম। আমি কপিলেফটের ত্রকনিষ্ট সমর্থক এবং আমি বিশ্বাস করি এটি বাধ্যতামূলক হওয়া উচিৎ, সকল সৃজনশীল এবং/অথবা বুদ্ধিবৃত্তিক কাজের জন্য। আমি যখনই সম্ভব গনু জেনারেল পাবলিক লাইসেন্স ব্যবহার করি, এবং আমি দৃঢভাবে এর ব্যবহার সমর্থন করি।

ফ্রি সফটওয়্যারের এখনও অনেক দূর যেতে হবে। গনু প্রজেক্ট এবং ফ্রি সফটওয়্যার মুভমেন্টের উদ্দেশ্য হলো প্রোপ্রাইটারি সফটওয়্যারকে পৃথিবী থেকে উচ্ছেদ করা এবং সকলকে শুধুমাত্র ফ্রি সফটওয়্যার দান করা। এই সুউদ্দেশ্যটি লিবারবুটেরও আছে। এ্যাপল এবং মাইক্রোসফটের মতো কোম্পানিগুলো আমাদের প্রতিটি পদক্ষেপে বাধা দেয়ার চেষ্টা করে। তাদের চিন্তাধারা পুরোপুরি প্রোপ্রাইটারি; কম্পিউটারের উৎপাদনকারীরা তাদের চিপ/বোর্ডগুলো কিভাবে কাজ করে সে ব্যাপারে সমস্ত তথ্য লুকিয়ে রাখে, এবং তারা ডিআরএম (যেমন ফার্মওয়্যারের ক্রিপ্টোগ্রাফিক সিগনেচার চেকের) মাধ্যমে আমাদের কাজ বাধাগ্রস্ত করে; তাই লিবারবুটের হার্ডওয়্যার সাপোর্ট খুব নগণ্য, অন্তত এই আর্টিকেল প্রকাশ পাওয়া পর্যন্ত। মেরামত করার অধিকার আমাদের লড়াইয়ের জন্য খুব প্রয়োজনীয়, বিশেষ করে, OSHW (ফ্রি/লিবার হার্ডওয়্যার) আন্দোলনের জন্য। আরেকটি সমস্যা হচ্ছে যে আমরা যন্ত্রাংশের সিরিয়ালাইজেশন পাচ্ছি না, যার মানে পুরোনো যন্ত্রাংশ নষ্ট হয়ে গেলে নতুন যন্ত্রাংশ পাওয়া যাচ্ছে না, বিশেষ করে আধুনিক ডিভাইসগুলোতে; কারণ ডিভাইসের সফটওয়্যার পরীক্ষা করতে পারে যে যন্ত্রাংশটি কোম্পানির মাধ্যমে অনুমিত কিনা এবং না হলে কাজই করবে না। আমরা যারা স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন করে যাচ্ছি, তাদেরকে আইনগতভাবে এবং কারিগরি দিক থেকে অনেক আঘাত প্রতিঘাত সহ্য করতে হচ্ছে। আমাদের প্রচেষ্টাকে নস্যাৎ করতে টেক কোম্পানিগুলো ছলে বলে কৌশলে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

রিচার্ড স্টলম্যানের অবদান ছাড়া, লিবারবুট কখনোই সম্ভবপর হতো না। সকল কাজই মানব জাতির তৈরি; বোদ্ধাদের এতে গুরুত্ব অপরিসীম। গনু প্রজেক্ট প্রায় একটি সম্পূর্ণ অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করে ফেলেছিলো, এবং সব শেষে তাদের শুধু একটি অংশ বাকী ছিল, কার্নেল, এই প্রোগ্রামটি অপারেটিং সিস্টেমের একেবারে কেন্দ্রে অবস্থান করে, হার্ডওয়্যারের সাথে যোগাযোগ করে এবং সিস্টেম রিসোর্সের এক্সেস দেয়, একটি ইন্টারফেস দেয় যাতে করে এ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার চলতে পারে। গনু হার্ড নামে একটি কার্নেলের কাজ শুরু করেছিলো, কিন্তু ২০২১ সাল পর্যন্ত এখনও সেটা সম্পূর্ণ প্রস্তুত হয় নি। সৌভাগ্যবশত লিনাক্স নামে ৯০’র দশকে আরেকটি কার্নেল ছিল এবং যেটি গনু জিপিএলে মুক্তি পায়, যার মানে গনু সিস্টেমের সাথে লিনাক্স ব্যবহার করে আমরা তখন একটি সম্পূর্ণ স্বাধীন অপারেটিং সিস্টেম পেতে পারি; প্রথম দিকের গনু+লিনাক্স ডিস্ট্রিবিউশনের যাত্রা শুরু হলো! এর মাধ্যমে আমাদের আন্দোলন শুরু হলো, ফ্রি সফটওয়্যার মুভমেন্ট, এবং এটা ছাড়া, আমার মনে হয় না যে আমরা স্বাধীন কম্পিউটারের দিক থেকে এতটা অগ্রসর হতে পারতাম। আমি গনু এবং লিবারবুট ছাড়া কোন পৃথিবীর কথা চিন্তাও করতে পারি না।

কোরবুট কি গনু+লিনাক্স ছাড়া হতে পারতো? বোধহয় না! হয়তো লিনাক্স তার মতো বেঁচে থাকতো, কিন্তু সেটা কি ফ্রি সফটওয়্যার হতো? এটা কি এতটা সাফল্য পেত? সেক্ষেত্রে, বিএসডি হয়তো রাজত্ব দখল করতো, এবং তাদের কি স্বাধীনতার ব্যাপারে আগ্রহ থাকতো, নাকি তারা সোর্স কোডকে শুধুমাত্র লেখাপড়ার উদ্দেশ্যে রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহার করা যাবে এমন নিয়ম করে চালিয়ে দিত?

দেখুন, ৮০’র দশকে রিচার্ড স্টলম্যানের কাজগুলো বৈপ্লবিক ছিল এবং ওনাকে ছাড়া আমরা কেউই এতদূর আসতে পারতাম না। বড় বড় প্রযুক্তি কোম্পানির লোকগুলো আমাদের ঘৃণা করে, এবং আমাদের আন্দোলনকে তারা সারাজীবনই আঘাত করে আসছে। আরএমএসের উপর আঘাত আসলে এটারই প্রমাণ। রিচার্ড কি করলো বা না করলো সেটা নিয়ে তাদের একটুও মাথা ব্যথা নেই।

রিচার্ড ১৯৮৫ সাল থেকে অর্থাৎ একেবারে শুরু থেকেই ফ্রি সফটওয়্যার ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট ছিলেন, ফ্রি সফটওয়্যারের দর্শন প্রচার করছিলেন; কিন্তু শেষমেশ, ২০১৯ সালে একটি অনৈতিক অরওয়েলিয়ান স্টাইলের অপপ্রচারের মাধ্যমে তাকে ক্যানসেল করা হয়।

লিবারবুটের সাথে পরিচিতরা হয়তো উপরের সবকিছুই জানেন, অথবা তারা সারসংক্ষেপ সম্পর্কে অবগত আছেন, কিন্তু আজকে কেন আমি এফএসএফ, গনু এবং রিচার্ড স্টলম্যানের ব্যাপারে লিখছি? কারণ একটি দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ঘটতে চলেছে।

আমার কথা হয়তো বিশ্বাস হবে না। স্টিফেন ফ্রাই, বহুল পরিচিত একজন গনু+লিনাক্স ব্যবহারকারী, ২০০৮ সালে গনু প্রজেক্টের প্রশংসা করে এবং ফ্রি সফটওয়্যারের সমর্থন করে এই ভিডিওটি তৈরি করেছেন:

https://vid.puffyan.us/watch?v=P_mS4CIXcLY

যদি লোড করতে সমস্যা হয়, তাহলে এখানে দেখুন: https://vid.puffyan.us/watch?v=P_mS4CIXcLY

আরএমএস হিজড়াভীতু নন

আমি রিচার্ডের অনেক দিনের ভালো বন্ধু। আমার ওনার সাথে কয়েক বছর আগে একটু সমস্যা হয়েছিল (জনসম্মুখেই), কিন্তু আমরা সেটা সমাধান করতে পেরেছি। তিনি আমাকে সবসময়ই সম্মান করেন।

যখন আমার প্রজেক্ট, লিবারবুট, গনুর সদস্য হওয়ার মাঝখানে ছিল, আমি তখনও হিজড়া হিসেবে আত্মপ্রকাশ করি নি। লিবারবুট গনু লিবারবুট হওয়ার আগেই আমি হিজড়া হিসেবে আত্মপ্রকাশ করি। আরএমএস সঙ্গে সঙ্গেই আমাকে নারী হিসেবে সম্বোধন করা শুরু করে দেন। কোন সমস্যা হয় নি।

কিছু মানুষ এই আর্টিকেলটির লিংক দিয়ে বলছেন যে তিনি হিজড়াভীতু: https://stallman.org/articles/genderless-pronouns.html

বিশেষভাবে, অনেকে বিশ্বাস করেন যে আরএমএস সঠিক বিশেষণ ব্যবহার করতে চান না। অনেকে বিশ্বাস করেন যে হিজড়াভীতু হওয়ার কারণে তিনি they/them এর বদলে per/perse ব্যবহার করার পক্ষপাতী।

আপনাদেরকে আমি বলতে চাই:

রিচার্ড আর্টিকেলটি লেখার সময় আমাকে এবং আরো অনেককে সেটির কপি পাঠিয়েছিলেন। আমি বার বার ওনাকে per/perse ব্যবহার না করার জন্য পরামর্শ দিয়েছিলাম। মোটামুটি সবাইকে উদ্দেশ্য করার জন্য আমি ওনাকে দৃঢ়ভাবে they/them ব্যবহার করার জন্য পরামর্শ দিয়েছিলাম। যখন তিনি per/perse ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিলেন, আমি সত্যি বলতে একটু বিরক্ত হয়েছিলাম কিন্তু অসম্মানিত হই নি; কারণ এটা হয়তো বোকামী ছিল। স্পষ্টত, they/them বহুল প্রচলিত এবং সবচেয়ে কম ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি করতো।

বোকামী করা আর হিজড়াভীতু হওয়া এক নয়। যদি আপনি রিচার্ডকে আপনার পছন্দের বিশেষণটি বলে থাকেন, তাহলে তিনি সেটা নিঃসন্দেহে ব্যবহার করবেন।

আমার কয়েকজন বন্ধু হিজড়া এবং রিচার্ডের সাথে কথা বলেন, মূলত ইমেইলে। তিনি ওনাদের দেয়া বিশেষণগুলোর প্রতি সম্মান প্রদর্শন করেন।

উল্লেখ্য, গনু প্রজেক্টেও বিশেষণ নিয়ে এমন গাইডলাইন আছে: https://www.gnu.org/philosophy/kind-communication.en.html - দেখুন: https://www.gnu.org/philosophy/kind-communication.en.html#f1

হিজড়াভীতু নন তিনি। একেবারেই না। হয়তো per/pers লিখতে চেয়েছেন। হিজড়াভীতু নন, হয়তো বোকা একটু। আমার প্রজেক্ট, লিবারবুট, যখন গনু প্রজেক্টে ছিলো এবং অন্যান্য ডেভেলপারদের সাথে কাজ করেছি, আমার বিশেষণ নিয়ে কোন সমস্যা হয় নি। আরএমএসকে হিজড়াভীতু বলাটা সত্যিকারের হিজড়াভীতিকে অসম্মান দেখানোর সামিল।

পেছনের তথ্য

আমি হয়তো ওনার ব্যাপারে আনা অভিযোগগুলো নিয়ে কিছু বলতে পারি, কিন্তু অন্যান্য আর্টিকেলগুলো ইতিমধ্যেই সেটা করেছে; সেগুলো আমার চাইতে অনেক ভালো এ বিষয়ে লিখেছে, তাই অনুগ্রহ করে নিচের লিংকগুলোতে ক্লিক করুন।

আমি নতুন করে ওনাদের করা কাজ আবার করতে চাই না। এই আর্টিকেলের মূল উদ্দেশ্যই ছিল রিচার্ড স্টলম্যানের প্রতি সমর্থন জানানো, এবং ওনার সম্মান রক্ষা করা। ওনার সময় একসময় হয়তো শেষ হবে, তবে ওনার ইতি প্রাকৃতিক কারণে হওয়াই প্রাপ্য। তবে আমার মনে হয়, ওনার এখনও অনেক কিছু দেয়া বাকী!

নিচের আর্টিকেলগুলো মোটামুটিভাবে সেপ্টেম্বর ২০১৯ থেকে রিচার্ড স্টলম্যানের সাথে হওয়া ঘটনাগুলোর বর্ণনা করে:

https://www.wetheweb.org/post/cancel-we-the-web

এখানে আরেকটি আর্টিকেল আছে যেটা রিচার্ডকে সমর্থন করে, এবং এখানেও রিচার্ডকে নিয়ে ঘটনাগুলোর বিস্তারিত বিবরণ দেয়া আছে:

https://jorgemorais.gitlab.io/justice-for-rms/

DistroTube-এর তৈরি করা এই ভিডিওটিও ঘটনাগুলোর বর্ণনা করে:

https://vid.puffyan.us/watch?v=Uun2YhnUNGc

বিরোধীদের সত্যিকারের চেহারা প্রকাশ করা

আমাদের সমস্যা, রিচার্ড স্টলম্যানকে রক্ষা করার ক্ষেত্রে, বিরোধীরা আমাদের ভাষাকে নকল করা শিখে গেছে। তারা কথার বুলি আওড়াচ্ছে, বিভিন্ন রঙ ধারণ করছে, কিন্তু ভুল করবেন না: তাদের কাজ এবং উদ্দেশ্য কোনটাই আমাদের দর্শনের সাথে যায় না! ঐ লিস্টে কিছু প্রকৃত ফ্রি সফটওয়্যার আন্দোলনে বিশ্বাসীরা আছে, যাদেরকে ভুল বোঝানো হয়েছে যাতে তারা আরএমএসের বিরুদ্ধে কথা বলেছে; আমার মনযোগ এখন তাদের দিকে না, কিন্তু হয়তো কিছু মানুষ বা প্রতিষ্ঠান আমার এই লেখা পড়লে তাদের সিদ্ধান্ত বদলে ফেলবেন!

আমি ক্যানসেল কালচার অনুসরণ করি না। সেই কালচারের কেউ হয়তো আমাকে ক্যানসেল করার অপচেষ্টা করবে কিন্তু তাদের ক্ষেত্রে আমি তা করবো না। এই আর্টিকেলটি শুধু আরএমএসকে হিংস্র অপপ্রচার থেকে বাঁচানোর একটি প্রচেষ্টা। এটা করার জন্য আমরা আরএমএস-বিরোধী লিস্টের সদস্যদের ব্যাপারে একটু জানার চেষ্টা করবো।

আমি বলেছিলাম যে আরএমএসের অপসারণের চিঠিটির লিংক আমি দিব না, তাই আমি শুধু লিংকটা এখানে দিয়ে দিচ্ছি এটাকে হাইপারলিংক না বানিয়ে (যাতে করে সার্চ ইঞ্জিনের অবস্থান উন্নত না হয়)। নামের লিস্টটা একবার দেখুন:

https://rms-open-letter.github.io/

বোকা বনে যাবেন না! ওপেন সোর্স মুভমেন্ট আর ফ্রি সফটওয়্যার মুভমেন্ট এক নয়! নিচের এই আর্টিকেলটি ওপেন সোর্স আর ফ্রি সফটওয়্যারের মধ্যে পার্থক্য নিয়ে লেখা: https://www.gnu.org/philosophy/open-source-misses-the-point.en.html

আমি মূলত মূল লিস্টের মানুষগুলোর ব্যাপারে আলোকপাত করবো, এবং হয়তো কিছু প্রতিষ্ঠান (বা কিছু নাম)-এর ব্যাপারেও। এদের মধ্যে অনেকেই মোটামুটি ভালো মানুষ আরএমএস-বিরোধী স্বাক্ষরতা ছাড়া (এর মানে হয়তো তাদেরকে ভুল বোঝানো হয়েছে), আবার ঐ লিস্টের কিছু কিছু মানুষ ঘৃণ্য

আমি নিচে বর্ণনা করছি:

রেডহ্যাটের এফএসএফের অনুদান তুলে নেয়া

রেডহ্যাট ঘোষণা দিয়েছে, আরএমএসকে পুনরায় এফএসএফে নিয়োগ দেয়ার কারণে, যে তারা এফএসএফের অনুদান তুলে নেবে। এর মানে তারা অপপ্রচারের দলে যোগ দিয়েছে।

রেডহ্যাটের ইদানীংকালের মালিক নন-ফ্রি সফটওয়্যার কোম্পানি আইবিএম। তাদের এন্টারপ্রাইজ গনু+লিনাক্স ডিস্ট্রোটি অসংখ্য নন-ফ্রি সফটওয়্যারে ভরপুর এবং তারা তাদের ক্রেতাদেরকে সবসময় জ্ঞান দিতে থাকে কিভাবে আরো নন-ফ্রি সফটওয়্যার তারা পেতে পারে; তারা ফ্রি-সফটওয়্যারকে এগিয়ে নেয়ার জন্য কিছুই করে না এবং শুধু এটাকে তাদের ব্যবহার্য একটি জিনিস হিসেবে দেখেন। তারা এফএসএফের দর্শনগুলোতে বিশ্বাস করে না। আইবিএমের সাথে তাদের মার্জারের বিষয়ে বিস্তারিত: https://www.redhat.com/en/ibm

রেডহ্যাট খুব সম্প্রতি সেন্ট ওএসকে শেষ করে দিয়েছে। সেন্ট ওএস ছিল আরএইচইএলের কমিউনিটি এডিশন, যার জোরালো কমিউনিটি সমর্থন ছিল। অন্যভাবে বলতে গেলে, রেডহ্যাট সক্রিয়ভাবে এমন পদক্ষেপ নিয়েছে যাতে কমিউনিটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আরো তথ্য: https://arstechnica.com/gadgets/2020/12/centos-shifts-from-red-hat-unbranded-to-red-hat-beta/

এখানে দেখুন: https://www.ibm.com/products/software

এটা দেখে কি মনে হয় যে কোম্পানিটা আদৌ ফ্রি সফটওয়্যার নিয়ে পরোয়া করে?

রেডহ্যাট কিভাবে চিন্তা করে সেটা নিয়ে এত কথা বলছি কেন? যদি তারা অনুদান তুলে নেন, এর মানে একটা কম দূষিত কোম্পানি নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে হবে! রেডহ্যাট ফ্রি সফটওয়্যারে বিশ্বাস করে না (তারা হয়তো ওপেন সোর্সে কখনো একসময় বিশ্বাস করেছিলো, কিন্তু আইবিএম কিনে ফেলার পর এখন তারা আর সেরকম নেই)

ওএসআই/মাইক্রোসফট সংযোগ

ওএসআই ওপেস সোর্স ইনিশিয়েটিভ-এর সংক্ষিপ্ত রূপ। এই প্রতিষ্ঠানটি ফ্রি সফটওয়্যার ফাউন্ডেশনের একটি নকল হিসেবে শুরু হয় যাদের উদ্দেশ্য ছিল বড় বড় কোম্পানির মার্কেট পাওয়া। ওএসআই নিয়ে এটা পড়ুন: https://en.wikipedia.org/wiki/Open_Source_Initiative

কথায় আছে ছবি হাজার কথা বলে:

বাম থেকে ডানে, তাদের নাম (সবাই ওএসআই লিডার/প্রভাবক হিসেবে পরিচিত), যেখানে বাম বলতে আপনার বাম এবং তাদের ডান:

পেছনের সারি: Faidon Liambotis, Chris Lamb, Simon Phipps, Allison Randal, Molly de Blanc, Patrick Masson

সামনের সারি: Josh Simmons, VM Brasseur, Carol Smith, Italo Vignoli, Richard Fontana.

এখানের সবাই ওএসআইতে খুব প্রভাবশালী। অনেকে সাবেক প্রেসিডেন্ট।

ছবিটা কি আপনার কাছে অদ্ভুত লাগছে? দেখুন তারা কোথায় আছে। ছবিটি এসেছে এই আর্টিকেলটি থেকে: http://techrights.org/2020/01/15/osi-board-at-microsoft/ (আর্কাইভ: http://web.archive.org/web/20200121042512/http://techrights.org/2020/01/15/osi-board-at-microsoft/)

মাইক্রোসফট ওএসআইয়ের অন্যতম প্রধান স্পন্সর। ওএসআই তাদের নিজেদের ওয়েবসাইটেই এটি উল্লেখ করেছে: https://opensource.org/node/901 (আর্কাইভ: http://web.archive.org/web/20201112022740/https://opensource.org/node/901)

যখন আপনার প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের মতো কোম্পানির উপর বিপুল পরিমাণ অর্থের জন্য নির্ভর করবে (যারা ফ্রি সফটওয়্যার এবং ওপেন সোর্সকে বছরের পর বছর অনবরত আঘাত করেছে), তখন আপনার দর্শন বহন করার ক্ষমতা কিছুটা হলেও হ্রাস পাবে। আপনার মধ্যে থাকা আকর্ষণ কিছুটা হলেও হারাবে। আপনি তখন আপনার অর্থদাতাদের কথায় উঠ-বস করবেন, কারণ আপনি ভয় পাবেন যদি অনুদান বন্ধ হয়ে যায়। মাইক্রোসফট, বছরের পর বছর, ওপেন সোর্সের মানে বের করার চেষ্টা করছে; কিন্তু বাস্তবে, এটা হলো ওপেনওয়াশিং (হোয়াইটওয়াশিংয়ের মত, কিন্তু ওপেন সোর্সের জন্য), এবং মাইক্রোসফটের মূল পণ্য যেমন উইন্ডোজ কিন্তু এখনও নন-ফ্রি! মাইক্রোসফট এখনও সিকিউরবুট এবং ক্রিপ্টোগ্রাফিকালি সাইনড ফার্মওয়্যারের মাধ্যমে আপনার পরাধীনতা বাড়ানোর ব্যাপারে ভুলভাল প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

তাহলে যদি মাইক্রোসফট রিচার্ড স্টলম্যানকে বছরের পর বছর ঘৃণা করে থাকে, এবং বছরের পর বছর ওনাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করে, এবং মাইক্রোসফটের যদি ওপেন সোর্স ইনিশিয়েটিভকে অর্থনৈতিকভাবে প্রভাবিত করার ক্ষমতা থাকে, এমন একটা প্রতিষ্ঠান যাদের মোটামুটি বিশ্বাসযোগ্যভাবে ফ্রি সফটওয়্যারের ভাষা বলার অভিজ্ঞতা থাকে, এতে করে মাইক্রোসফটেরই কি সবচেয়ে খুশি হবার কথা নয়? আপনি যদি মাইক্রোসফট হতেন। আপনি হয়তো এই সুযোগটাই খুঁজতেন, তাই না? আমার যতটা মনে হয় যেকেউই একথাই ভাববেন।

যদি মাইক্রোসফট ওএসআইয়ের সাথে এতটা সংযুক্ত না-ও থাকতো, ওএসআইয়ের কি অধিকার আছে যে তারা ফ্রি সফটওয়্যারের ভাষা ব্যবহার করে আমাদের কমিউনিটির সদস্য হওয়ার ভান করবে? ওপেন সোর্স, ফ্রি সফটওয়্যার মুভমেন্টের অংশ নয়! আদর্শগতভাবে বরং তারা ফ্রি সফটওয়্যারের প্রতিযোগী।

মজার তথ্য:

ওএসআই সম্প্রতি এরিক এস রেমন্ডকে (ওএসআইয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা) তাদের সকল মেইলিং লিস্ট থেকে বহিষ্কার করে দিয়েছে, কারণ তিনি ওএসআইতে এথিকাল সোর্স মুভমেন্টের অনধিকার প্রবেশ নিয়ে এবং অতিরিক্ত কঠোর কোড অব কন্ডাক্ট যেটা বাকস্বাধীনতা রোধ করে এই দুটো নিয়ে কথা বলেছেন। নামটা ভালো মনে হলেও, এথিকাল সোর্স লাইসেন্সগুলো আসলে নন-ফ্রি কারণ তারা সফটওয়্যারের ব্যবহারের উপর সীমাবদ্ধতা আরোপ করে; যদি সফটওয়্যারের লেখক আপনার রাজনৈতিক বিশ্বাসের সাথে দ্বিমত পোষণ করেন, তাহলে তারা সেই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা থেকে আপনাকে রহিত করতে পারবেন। এটা ঠিক নয়! কোরালাইন আডা এহমকে (এথিকাল সোর্স মুভমেন্টের নেতা) ওএসআইয়ের ওপেন সোর্সের সংজ্ঞা পরিবর্তন করে লেখার জন্য আহ্বান করছিলেন। এই ভিডিওটিতে এবিষয়ে কিছুটা তথ্য পাওয়া যাবে:

https://vid.puffyan.us/watch?v=gkhmwr6O2W4

ওএসআই’র কাণ্ড দেখে মনে হচ্ছে, তারা এরিককে আর কখনো প্রবেশ করতে দিবে না; যদিও আমি ওপেন সোর্সের সাথে দ্বিমত পোষণ করি (কারণ আমি ফ্রি সফটওয়্যার সমর্থক), ওপেন সোর্স অতটা খারাপ নয়, তবে আদর্শগতভাবে একটু কমতি আছে; কোরালাইন আডা এহমকের মতো এথিকাল সোর্সের সমর্থকেরা প্রচুর ধ্বংসযজ্ঞ চালাতে পারে (তারা ইতিমধ্যেই বহুল পরিচিত কয়েকটি ফ্রি সফটওয়্যার এবং ওপেন সোর্স প্রোজেক্টকে কোড অব কন্ডাক্ট চালু করতে বাধ্য করেছে; লিবারবুট সম্প্রতি একারণে তাদের কোড অব কন্ডাক্ট বাদ দিয়ে দিয়েছে, যেটা কিনা কেবলই বলতে গেলে কোরালাইনের কন্ট্রিবিউটর কোভেনেন্টের নামান্তর ছিল)।

সবারই উচিৎ এরিক রেমন্ডকে সমর্থনসূচক ইমেইল করা। উনি যা করেছেন ঠিক করেছেন। ওনাকে সহমর্মিতা জানান। আমি ওনার ব্যাপারে তেমন খারাপ কিছু শুনি নি। তিনি বেশ যুক্তিসঙ্গত এবং ভালো মানুষ; স্পষ্টভাষী এবং সোজাসাপটা কথা বলেন অথচ মানুষের প্রতি অসম্মান না দেখিয়ে (এটা আমার মতামত, ওনার কিছু আর্টিকেল পড়ে), যেটা খুব প্রশংসার দাবিদার।

মাইক্রোসফট কর্মকর্তাদের সরব উপস্থিতি

জ্বি হ্যাঁ, মাইক্রোসফট কর্মকর্তারা আরএমএস-বিরোধী লিস্টে আছেন।

এই মানুষগুলোর কি এমন ঠেকা পড়েছে যে তারা আমাদের আদর্শ নিয়ে বা এফএসএফের কর্মকাণ্ড নিয়ে এত ভাষণ শোনাচ্ছে?

মাইক্রোসফট ফ্রি সফটওয়্যার মুভমেন্টের আজীবন শত্রু। মাইক্রোসফট এত বোকা নয় যে তারা পুরো কোম্পানির নাম সেখানে দেবে, কারণ তাহলে তো সবাই বুঝে যাবে আর আরএমএস-বিরোধী অপপ্রচারের সেখানেই ইতি হয়ে যাবে; তাই এর বদলে, তারা আমাদের প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিত্ব করার ভান করে এমন কাউকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে তাদের মাধ্যমে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

আমি যদি মাইক্রোসফট হতাম, আমি তাদেরকে এই লিস্ট থেকে তাদের নাম মুছে ফেলতে অনুরোধ করতাম। এটা এক দিক থেকে আরএমএস-বিরোধী উদ্যোগের জন্য খারাপ, কারণ তাদের নাম এভাবে মাইক্রোসফটের সাথে জড়িত হয়ে যাচ্ছে, যদিও তাদের সংখ্যা নগণ্য।

এই লিস্টের কেউই মাইক্রোসফটের উপরের দিকের কেউ নন। আমার বিশ্বাস যে তারা স্বাধীনভাবে তাদের নাম প্রকাশ করেছে, কারও নির্দেশ ছাড়া। কোন সুস্থ মস্তিষ্কের মাইক্রোসফট বস সেই পেজে মাইক্রোসফট হিসেবে নিজের নাম দেখতে চাইবে না, কখনোই না!

গানোম ফাউন্ডেশন (এবং মাইক্রোসফটের সাথে তাদের গভীর সম্পর্ক)

নোট: গানোম কমিউনিটি এবং গানোম ফাউন্ডেশন দুটোকে কিন্তু এক ভাববেন না। দুটো সম্পূর্ণ ভিন্ন জিনিস!

গানোম ফাউন্ডেশনের সাথে মাইক্রোসফটের সুপরিচয়ের কথা অনেকেরই জানা। এখানে একটা আর্টিকেল আছে:

http://web.archive.org/web/20200607212123/http://techrights.org/2020/06/07/gnome-board-of-directors-2020/

তারা আরএমএসকে বছরের পর বছর আঘাত করে আসছে:

http://techrights.org/2021/01/12/gnome-foundation-rms/

তাই, অবশ্যই, তারা যদি ফ্রি সফটওয়্যার মুভমেন্টের প্রতিনিধিত্ব করে তাহলে সেটা বিশ্বাসযোগ্য হবে না!

এই গানোম ফাউন্ডেশন সদস্যরা আরএমএস-বিরোধী লিস্টে স্বাক্ষর করেছেন, এবং গানোম ফাউন্ডেশনের সাথে জড়িত আছেন:

অন্যদের ক্ষেত্রে, আমি তাদের নাম এখানে দিব না, কিন্তু নিল এবং মলি আরএমএস-বিরোধী গিটহাব সাইটে পুশ/পুল/রিভিউ করার অধিকার রাখে। আমার মনে হলো তাদের নাম উল্লেখ করা প্রয়োজন; এবং দেখা যাচ্ছে যে তারা দুজনেই ডেবিয়ান প্রোজেক্টের সদস্য।

কোরালাইন আডা এহমকে (প্রতিষ্ঠাতা, অর্গানাইজেশন ফর এথিকাল সোর্স)

কোরালাইন এথিকাল সোর্স মুভমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা। নাম যা-ই হোক, তারা আসলে নন-ফ্রি লাইসেন্সের প্রচার করছে; নন-ফ্রি কারণ তারা সফটওয়্যার ব্যবহারের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। যদি আপনি ঐসব লাইসেন্সের কোন সফটওয়্যার ব্যবহার করেন, এবং সফটওয়্যার লেখক আপনার রাজনৈতিক অবস্থানের সাথে দ্বিমত পোষণ করেন, লেখক আপনাকে সেই সফটওয়্যার ব্যবহার করা থেকে রহিত করতে পারেন।

আমি কিন্তু স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি! আমি সবার জন্য স্বাধীনতা চাই, যারা আমার সাথে দ্বিমত পোষণ করে তাদের জন্যও!

কারো বিশ্বাসের উপর ভিত্তি করে বৈষম্য সৃষ্টি করা সবসময়ই খারাপ। যদি নেই, কিন্তু নেই। আমি চাই আমার রাজনৈতিক বিরোধীদের স্বাধীনতা বজায় থাকুক, কারণ:

কোরালাইন অনলাইনেও খুব অপমানজনক আচরণ করেন। তিনি একাধিকবার বিভিন্ন কোম্পানি/প্রোজেক্টকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেছেন, যেটা রীতিমত উৎপীড়নমূলক। এমনও হতে পারে যে তিনি একসময় লিবারবুট প্রোজেক্টকেও আঘাত করতে পারেন, বিশেষ করে এই আর্টিকেলের কথা তিনি জানতে পারলে।

তিনি ভয়ংকর একজন মানুষ।

তিনি কন্ট্রিবিউটর কোভেনেন্টের জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত, যেটি একটি উদাহরণস্বরূপ দেয়া কোড অব কন্ডাক্ট যেটির উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন প্রোজেক্ট তাদের নিয়মকানুন তৈরি করে থাকে। লিবারবুট প্রোজেক্টের পক্ষ থেকে আমরা অনুরোধ করবো যেন আপনি কোড অব কন্ডাক্ট ব্যবহার না করেন, কারণ এটা নতুন কন্ট্রিবিউটরদেরকে আলাদা করে ফেলে এবং একটা এমন পরিবেশ তৈরি করে যাতে কেউ যেকোন বিষয়ে কথা বলার ব্যাপারে সঙ্কোচবোধ করে; দেখুন, বাকস্বাধীনতা ভালো, এবং এটা মোটামুটি বলা যায় যে কেউ সমালোচনা করলে সেটা সরাসরি সামলানোই ভালো। কন্ট্রিবিউটর কোভেনেন্ট একটি ছদ্ববেশী খেলনার মতো; এটাই তারা কোন প্রোজেক্টের উপর সবার প্রথম চাপিয়ে দিতে চায়, এবং তারপর তারা এথিকাল সোর্স লাইসেন্স গ্রহণ করার জন্য প্রস্তাব দেয়। আপনি যখন এথিকাল সোর্সের প্রথম ডোজ খাবেন, তারা তাদের নখ আরো গভীরে বিধিয়ে দেবে। এধরণের মানুষকে আপনার প্রোজেক্টে অনুপ্রবেশ করতে দেবেন না!

কোরালাইন আডা এহমকে অথবা তার মতো কারো কথা শুনবেন না! তিনি নিজেই ঘৃণা এবং গোঁড়ামিতে ভরপুর। তিনি অন্য মানুষের মতামতকে মোটেই সহ্য করতে পারেন না আর প্রায়ই দ্বিমত পোষণকারী সবাইকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেন।

উপসংহার

আজ এতটুকুই!

আরএমএসের পক্ষে কথা বলুন!

আমি আর লিখতে চাচ্ছি না। আমি লিস্টের আরো অন্যদের নিয়ে লিখতে চেয়েছিলাম, কিন্তু আমার মনে হয় আপনি বুঝতে পেরেছেন যে আমি কি বলতে চাইছি।

Markdown file for this page: https://libreboot.org/news/rms.bn.md

Site map

This HTML page was generated by untitled static site generator.